বিপিএল বন্ধের দাবি ওলামা লীগের



বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) অনুষ্ঠিত হচ্ছে ২০১২ সাল থেকে। গেল ৫ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে টুর্নামেন্টের ষষ্ঠ আসর। তবে ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক এই ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লিগটি নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়েছে আওয়ামী ওলামা লীগ।
২১ জানুয়ারি, সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধন কর্মসূচি থেকে বিপিএল বন্ধ করার দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি। মানববন্ধনে ওলামা লীগসহ সমমনা ১৩টি দল অংশ নেয়। এ সময় ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লিগকে জুয়াড়ি তৈরির কারখানা বলে মন্তব্য করে তারা।

ওলামা লীগের দাবি, বিপিএলের নামে পুরো দেশকে জুয়াড়িদের আস্তানায় পরিণত করা হচ্ছে। বিপিএল ও আইপিএলের মতো খেলা বন্ধ করার দাবি জানিয়ে ওলামা লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসান শেখ শরিয়তপুরী বলেন, ‘বিপিএলের নামে দেশকে জুয়াড়িদের আস্তানায় পরিণত করা হচ্ছে। প্রতিটি বলে এখন জুয়া বাজি ধরা হচ্ছে।’

বিপিএলের মতো টুর্নামেন্ট সংবিধানবিরোধী উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘বড় বড় জুয়াড়িদের পাশাপাশি চায়ের দোকানে সাধারণ লোকজনও এখন বিপিএল, আইপিএল তথা ক্রিকেট জুয়ায় মত্ত হয়েছে। এটা সম্পূর্ণ সংবিধানবিরোধী। দেশের সংবিধানে মদ ও জুয়া নিষিদ্ধ করেছেন বঙ্গবন্ধু। সেই জুয়াড়ি তৈরির আসর বিপিএল, আইপিএলের মতো সব খেলাধুলা বাংলাদেশে নিষিদ্ধ করতে হবে।’

বিপিএল ছাড়াও দেশে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে কাজ করা বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানকে নিষিদ্ধের দাবি জানায় ওলামা লীগ। এ ছাড়াও বাংলাদেশে অবস্থানরত ৫০ লাখ অবৈধ ভারতীয়কে ফেরত পাঠানো, যানজট নিরসনে ঢাকার পরিবর্তে জেলা পর্যায়ে অফিস-আদালত, পোশাক কারখানা, শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল ও গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা নির্মাণের দাবি জানানো হয়।