বাংলামোটরে বাসায় শিশুর লাশ, বাবা আটক


রাজধানীর শাহবাগ থানাধীন বাংলামোটরে খোদেজা খাতুন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উল্টা পাশে ১৬ নম্বর বাড়ি থেকে এক শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় তার বাবাকে আটক করেছে পুলিশ।

লাশ উদ্ধারের পর ৫ ডিসেম্বর, বুধবার দুপুর ২টার দিকে বাবা নুরুজ্জামান কাজলকে আটক করা হয়।

প্রাণহীন অবস্থায় উদ্ধার হওয়া শিশুটির নাম সাফায়েত (৩)।

স্থানীয় কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, নুরুজ্জামান কাজল নামের এক ব্যক্তি ওই বাসায় তার দুই ছেলেকে নিয়ে বসবাস করেন। একজনের নাম সাফায়েত; বয়স সাড়ে তিন বছর। অপর জনের নাম রাফায়েত; বয়স আড়াই বছর। কাজল মাদকাসক্ত। কিছুদিন হয় তার স্ত্রী ঝগড়া করে চলে গেছেন। ফজরের নামাজের সময় কাজল স্থানীয় মসজিদে গিয়ে জানান যে, তার এক ছেলে মারা গেছেন। এ জন্য তিনি মসজিদের ইমাম ও খাদেমসহ দুই জনকে তার বাসায় ডেকে নিয়ে যান। কিন্তু ওই বাসায় যাওয়ার পরে তারা দেখেন বড় ছেলে সাফায়াতকে হত্যা করে ফেলে রাখা হয়েছে।

পরে ইমাম ও খাদেম পুলিশকে খবর দেওয়ার চেষ্টা করলে কাজল তাদের ওপরে রাম দা নিয়ে চড়াও হন। তখন প্রাণভয়ে ওই বাসা থেকে ইমাম দৌড়ে পালিয়ে বের হয়ে আসতে পারলেও বাসাটিতে আটকা পড়েন মসজিদের খাদেম।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান জানান, খবর পেয়ে বাড়িতে প্রবেশের চেষ্টা করে পুলিশ সদস্যরা। সে সময় তারা দেখেন, কাজল তার আরেক ছেলেকে ধারালো অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে রেখে বাড়ির মূল গেট বন্ধ করে বসে আছেন। পরে পুলিশ কৌশলে বাসায় প্রবেশ করে জিম্মি রাফায়েত ও মসজিদের খাদেমকে উদ্ধার করে; আটক করে কাজলকে।