টস-ভাগ্যে গোল্ডেন বল হারালেন বাংলাদেশের মেয়ে স্বপ্না


সদ্য সমাপ্ত সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে একটি মাত্র গোল হজম করেছে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ। জবাবে প্রতিপক্ষের জালে সব মিলিয়ে বল জড়িয়েছে ২৪ বার। এর মধ্যে সাত গোলই এসেছে সিরাত জাহান স্বপ্নার পা থেকে। সাত গোল করে বাংলাদেশের স্বপ্নাই টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোলদাতা।

সর্বোচ্চ সাত গোল করেও গোল্ডেন বল থেকে বঞ্চিত হয়েছেন স্বপ্না। সমান সাত গোল করে গোল্ডেন বল জেতেন নেপালের রেখা পাউডেল। মূলত টস-ভাগ্যে রেখা পাউডেলের কাছে হেরে গেছেন স্বপ্না।

প্রথমে অবশ্য সর্বোচ্চ গোলদাতা হিসেবে সিরাত জাহান স্বপ্নার নামই ঘোষণা করা হয়েছিল। তখন তার নামের পাশে গোল লেখা ছিল আটটি। কিছুক্ষণ পরই জানা যায়, তার গোল সাতটি। পাকিস্তানের বিপক্ষে তার করা সাত গোলের মধ্যে একটি লেখা হয়েছে সানজীদার নামের পাশে।

পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৭-০ গোলের জয়ের ম্যাচে সানজীদার শটে শেষ মুহূর্তে হেড করেছিলেন সিরাত। পরে অবশ্য জানা যায়, স্বপ্না হেড করার আগেই বল গোললাইন অতিক্রম করেছিল। আর তাতেই ওই ম্যাচে স্বপ্নার গোল সংখ্যা দাঁড়ায় ছয়টি। বাকি গোলটি করেন নেপালের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে

এরপর গোল্ডেন বলজয়ী ফুটবলার নির্বাচনে সাহায্য নেওয়া হয় টসের। কিন্তু টস নিয়েও কম নাটক হয়নি। প্রথম বারের টসে জয় পেয়েছিলেন স্বপ্না। কিন্তু সেটি মানতে চাননি পাউডেল। আর দ্বিতীয় বার টসের ফল যায় স্বপ্নার বিপক্ষে। তাতে গোল্ডেন বল ছাড়াই দেশে ফিরতে হয়েছে স্বপ্নাকে।

দেশে ফিরে অবশ্য স্বপ্না জানিয়েছেন, ব্যক্তিগত এই পুরস্কার নিয়ে কোনো মাথাব্যথা নেই তার। বরং দেশকে চ্যাম্পিয়ন করে দেশে ফিরতে পেরেই যত আনন্দ তার!