মিয়ানমারের রাজনীতি থেকে সেনাবাহিনীকে সরাতে বলল জাতিসংঘ


যে পাঁচটি নিষিদ্ধ কাজকে গণহত্যা হিসেবে গণ্য করা হয় তার চারটিই করেছে মিয়ানমারের সেনাাবাহিনী। ১৮ সেপ্টেম্বর, মঙ্গলবার জাতিসংঘের তদন্তকারীরা এক প্রতিবেদনে এ কথা বলেন।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, মিয়ানমারের রাজনীতি থেকে সেনাবাহিনীকে সরিয়ে দেওয়া উচিত। পাশাপাশি শাসনব্যবস্থায় তাদের বাড়তি প্রভাবের ইতি ঘটানো উচিত। এ বিষয়ে দেশটির বেসামরিক সরকারের পক্ষ থেকে আরও বেশি পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানানো হয়েছে।

মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চি এরই মধ্যে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে হত্যা-নির্যাতনের বিষয়ে সেনাবাহিনীর প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন।

ইরানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম পার্স টুডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছরের আগস্ট মাসে জাতিসংঘের তদন্তকারীরা তাদের তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করেন। সেখানে জানানো হয়, রোহিঙ্গা নিধনযজ্ঞে সেনাবাহিনী জড়িত।

তারা বলেছিলেন, রাখাইনে রোহিঙ্গা গণহত্যায় ও মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত থাকায় মিয়ানমারের সেনা কর্মকর্তাদের অবশ্যই বিচারের আওতায় আনতে হবে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সেনাবাহিনীর সঙ্গে বেসামরিক কর্তৃপক্ষও এই নিধনযজ্ঞে ইন্ধন জুগিয়েছে।

এবার আবারও একই আহ্বান জানাল জাতিসংঘ। অপরাধী সেনা কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি এবং মিয়ানমার সেনাবাহিনীর কাছে অস্ত্র বিক্রি বন্ধেরও দাবি জানিয়েছে জাতিসংঘের তদন্ত কমিশন।